ভবিষ্যতের শক্তি কাগজের ব্যাটারিতে

ব্যাটারি বা বিদ্যুতের বিকল্প হিসাবে ন্যানো টেকনোলজির কাগজের ব্যাটারি ভবিষ্যতে ব্যবহৃত হবে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রেনসলেয়ার পলিটেকনিক ইনিষ্টিটিউটের গবেষেকদের তৈরীকৃত ন্যানো টেকনোলজির এই স্ট্যাম্প সাইজের কাগজে ২.৩ ভোল্ট বিদ্যুৎশক্তি পাওয়া যাবে। গবেষেক দলের মূখপাত্র প্রফেসর রবার্ট লিনহার্ট বলেছেন, এই ব্যাটারিতে কার্বন ন্যানোটিউব রয়েছে, যা এক সেন্টিমিটারের দশ লক্ষ ভাগের এক ভাগ পাতলা যার প্রত্যেকটি একটি ইলেক্ট্রন বহন করছে। এই ন্যানোটিউবস্ সঙ্কুচিত করে একটি কাগজের আয়নিক লিকুইড ইলেক্ট্রলাইটসি রয়েছে, যা ইলেক্ট্রিসিটি ধারণ করে রাখে। তিনি আরো জানিয়েছেন, যদি আমরা ৫০০ শিট কাগজকে একত্রিত করতে পারি তাহলে এতে ৫০০ গুণ ভোল্টেজ পাওয়া যাবে। আর যদি এটিকে আমরা দু’টুকরা করতে পারি তাহলে অর্ধেক ভোল্টেজ হবে। অর্ধাৎ কাগজের উপরে নিয়ন্ত্রণ আনতে পারলে আমরা বিদ্যুৎ এবং ভোল্টেজকের নিয়ন্ত্রণ করতে পারবো। গবেষকদের মতে এই কাগজের ব্যাটারি ভবিষ্যতে ইলেক্টনিক ও চিকিৎসাশাস্ত্রে ব্যবহার করা যাবে।

About এস. এম. মেহেদী আকরাম [রয়েল]

Check Also

সৌরশক্তির বিমান – Solar-Powered Aircraft

  Dedicated to: Prof. Khalilur Rahman, Department of Mathematics, Habibullah Bahar College, Dhaka.   Sunlight …

ফেসবুক কমেন্ট


  1. it is really gr8 nws, we should think of alternate energy sources for future

  2. চমৎকার! তবে ভাইয়া আরেকটুকু বিস্তারিত লিখলে ভাল হত। আপনি যদি বলতেন কোন ওয়েবে গেলে বিস্তারিত জানা যাবে তাহলে উপকৃত হতাম….রেদওয়ান নেওয়াজ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।