বিজ্ঞানীদের সাক্ষাৎকার #৬৮ : ড. কাফিউল ইসলাম

বিজ্ঞানী ডট অর্গ এর সাক্ষাৎকারের এই ৬৮ তম পর্বে এইবার কথা বলেছিলাম ড. কাফি এর সাথে। ড. কাফি এর সাথে পরিচয় সিঙ্গাপুরের ন্যাশনাল ইউনিভার্সিতে। আমি তখন বায়োমেডিক্যাল ডিপার্টমেন্টে গবেষক হিসাবে কাজ করছিলাম। একদিন সেই বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি কোর্সের ছেলেমেয়েদের একটি আড্ডা বসেছিল। সেইখানে ড. কাফি’র সাথে পরিচয়। বেশ অমায়িক এক মানুষ হিসাবেই তিনি প্রথম দিনেই আমার হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছিলেন। তারপরে দীর্ঘদিন যোগযোগ হয়নি। হটাৎ খোঁজ পেলাম তিনি গবেষনা শেষ করে বাংলাদেশে ফিরে যেয়ে ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ বা আই.ইউ.বি (IUB) তে শিক্ষক হিসাবে যোগদান করেছেন। আবার পাশাপাশি বাংলাদেশেই বেশ কিছু গবেষনার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। উচ্চশিক্ষার পরে বাংলাদেশে ফিরে যাবার সাহস করেছেন বলে সত্যিই খুব শ্রদ্ধা হল। শুধু শিক্ষাকতায় নয় সাথে সাথে গবেষনা করছেন যেনে সত্যিই অভিভূত হলাম। আমারও যেহেতু বাংলাদেশে প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষাকতা ও গবেষনা করার অভিজ্ঞতা আছে, তাই কিছুটা হলেও উপলব্ধি করতে পারলাম কেমন প্রতিকূলতার বিরূদ্ধে তাকে কাজ করতে হচ্ছে। অবশেষে ১৮ নভেম্বর ২০২২ এ রাতে তার সাথে আমি সাক্ষাতকারের জন্য সময় পেলাম।

বিজ্ঞানী ডট অর্গ এর সাক্ষাৎকার সিরিজে ড. কাফিউল ইসলাম এর সাথে কথা বলেছেন ড. মশিউর রহমান

বিজ্ঞানী ডট অর্গ এর সাক্ষাৎকারের এই ৬৮ তম পর্বে এইবার কথা বলেছিলাম ড. কাফি এর সাথে। ড. কাফি এর সাথে পরিচয় সিঙ্গাপুরের ন্যাশনাল ইউনিভার্সিতে। আমি তখন বায়োমেডিক্যাল ডিপার্টমেন্টে গবেষক হিসাবে কাজ করছিলাম। একদিন সেই বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি কোর্সের ছেলেমেয়েদের একটি আড্ডা বসেছিল। সেইখানে ড. কাফি’র সাথে পরিচয়। বেশ অমায়িক এক মানুষ হিসাবেই তিনি প্রথম দিনেই আমার হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছিলেন। তারপরে দীর্ঘদিন যোগযোগ হয়নি। হটাৎ খোঁজ পেলাম তিনি গবেষনা শেষ করে বাংলাদেশে ফিরে যেয়ে ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ বা আই.ইউ.বি (IUB) তে শিক্ষক হিসাবে যোগদান করেছেন। আবার পাশাপাশি বাংলাদেশেই বেশ কিছু গবেষনার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। উচ্চশিক্ষার পরে বাংলাদেশে ফিরে যাবার সাহস করেছেন বলে সত্যিই খুব শ্রদ্ধা হল। শুধু শিক্ষাকতায় নয় সাথে সাথে গবেষনা করছেন যেনে সত্যিই অভিভূত হলাম। আমারও যেহেতু বাংলাদেশে প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষাকতা ও গবেষনা করার অভিজ্ঞতা আছে, তাই কিছুটা হলেও উপলব্ধি করতে পারলাম কেমন প্রতিকূলতার বিরূদ্ধে তাকে কাজ করতে হচ্ছে। অবশেষে ১৮ নভেম্বর ২০২২ এ রাতে তার সাথে আমি সাক্ষাতকারের জন্য সময় পেলাম।

বিজ্ঞানী ডট অর্গ এর সাক্ষাৎকারের এই ৬৮ তম পর্বে এইবার কথা বলেছিলাম ড. কাফি এর সাথে। ড. কাফি এর সাথে পরিচয় সিঙ্গাপুরের ন্যাশনাল ইউনিভার্সিতে। আমি তখন বায়োমেডিক্যাল ডিপার্টমেন্টে গবেষক হিসাবে কাজ করছিলাম। একদিন সেই বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি কোর্সের ছেলেমেয়েদের একটি আড্ডা বসেছিল। সেইখানে ড. কাফি’র সাথে পরিচয়। বেশ অমায়িক এক মানুষ হিসাবেই তিনি প্রথম দিনেই আমার হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছিলেন। তারপরে দীর্ঘদিন যোগযোগ হয়নি। হটাৎ খোঁজ পেলাম তিনি গবেষনা শেষ করে বাংলাদেশে ফিরে যেয়ে ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ বা আই.ইউ.বি (IUB) তে শিক্ষক হিসাবে যোগদান করেছেন। আবার পাশাপাশি বাংলাদেশেই বেশ কিছু গবেষনার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। উচ্চশিক্ষার পরে বাংলাদেশে ফিরে যাবার সাহস করেছেন বলে সত্যিই খুব শ্রদ্ধা হল। শুধু শিক্ষাকতায় নয় সাথে সাথে গবেষনা করছেন যেনে সত্যিই অভিভূত হলাম। আমারও যেহেতু বাংলাদেশে প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষাকতা ও গবেষনা করার অভিজ্ঞতা আছে, তাই কিছুটা হলেও উপলব্ধি করতে পারলাম কেমন প্রতিকূলতার বিরূদ্ধে তাকে কাজ করতে হচ্ছে। অবশেষে ১৮ নভেম্বর ২০২২ এ রাতে তার সাথে আমি সাক্ষাতকারের জন্য সময় পেলাম।

বিজ্ঞানী ডট অর্গ এর সাক্ষাৎকারের এই ৬৮ তম পর্বে এইবার কথা বলেছিলাম ড. কাফি এর সাথে। ড. কাফি এর সাথে পরিচয় সিঙ্গাপুরের ন্যাশনাল ইউনিভার্সিতে। আমি তখন বায়োমেডিক্যাল ডিপার্টমেন্টে গবেষক হিসাবে কাজ করছিলাম। একদিন সেই বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি কোর্সের ছেলেমেয়েদের একটি আড্ডা বসেছিল। সেইখানে ড. কাফি’র সাথে পরিচয়। বেশ অমায়িক এক মানুষ হিসাবেই তিনি প্রথম দিনেই আমার হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছিলেন। তারপরে দীর্ঘদিন যোগযোগ হয়নি। হটাৎ খোঁজ পেলাম তিনি গবেষনা শেষ করে বাংলাদেশে ফিরে যেয়ে ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ বা আই.ইউ.বি (IUB) তে শিক্ষক হিসাবে যোগদান করেছেন। আবার পাশাপাশি বাংলাদেশেই বেশ কিছু গবেষনার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। উচ্চশিক্ষার পরে বাংলাদেশে ফিরে যাবার সাহস করেছেন বলে সত্যিই খুব শ্রদ্ধা হল। শুধু শিক্ষাকতায় নয় সাথে সাথে গবেষনা করছেন যেনে সত্যিই অভিভূত হলাম। আমারও যেহেতু বাংলাদেশে প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষাকতা ও গবেষনা করার অভিজ্ঞতা আছে, তাই কিছুটা হলেও উপলব্ধি করতে পারলাম কেমন প্রতিকূলতার বিরূদ্ধে তাকে কাজ করতে হচ্ছে। অবশেষে ১৮ নভেম্বর ২০২২ এ রাতে তার সাথে আমি সাক্ষাতকারের জন্য সময় পেলাম।

বিজ্ঞানী ডট অর্গ এর সাক্ষাৎকারের এই ৬৮ তম পর্বে এইবার কথা বলেছিলাম ড. কাফি এর সাথে। ড. কাফি এর সাথে পরিচয় সিঙ্গাপুরের ন্যাশনাল ইউনিভার্সিতে। আমি তখন বায়োমেডিক্যাল ডিপার্টমেন্টে গবেষক হিসাবে কাজ করছিলাম। একদিন সেই বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি কোর্সের ছেলেমেয়েদের একটি আড্ডা বসেছিল। সেইখানে ড. কাফি’র সাথে পরিচয়। বেশ অমায়িক এক মানুষ হিসাবেই তিনি প্রথম দিনেই আমার হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছিলেন। তারপরে দীর্ঘদিন যোগযোগ হয়নি। হটাৎ খোঁজ পেলাম তিনি গবেষনা শেষ করে বাংলাদেশে ফিরে যেয়ে ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ বা আই.ইউ.বি (IUB) তে শিক্ষক হিসাবে যোগদান করেছেন। আবার পাশাপাশি বাংলাদেশেই বেশ কিছু গবেষনার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। উচ্চশিক্ষার পরে বাংলাদেশে ফিরে যাবার সাহস করেছেন বলে সত্যিই খুব শ্রদ্ধা হল। শুধু শিক্ষাকতায় নয় সাথে সাথে গবেষনা করছেন যেনে সত্যিই অভিভূত হলাম। আমারও যেহেতু বাংলাদেশে প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষাকতা ও গবেষনা করার অভিজ্ঞতা আছে, তাই কিছুটা হলেও উপলব্ধি করতে পারলাম কেমন প্রতিকূলতার বিরূদ্ধে তাকে কাজ করতে হচ্ছে। অবশেষে ১৮ নভেম্বর ২০২২ এ রাতে তার সাথে আমি সাক্ষাতকারের জন্য সময় পেলাম।

বিজ্ঞানী ডট অর্গ এর সাক্ষাৎকারের এই ৬৮ তম পর্বে এইবার কথা বলেছিলাম ড. কাফি এর সাথে। ড. কাফি এর সাথে পরিচয় সিঙ্গাপুরের ন্যাশনাল ইউনিভার্সিতে। আমি তখন বায়োমেডিক্যাল ডিপার্টমেন্টে গবেষক হিসাবে কাজ করছিলাম। একদিন সেই বিশ্ববিদ্যালয়ে পিএইচডি কোর্সের ছেলেমেয়েদের একটি আড্ডা বসেছিল। সেইখানে ড. কাফি’র সাথে পরিচয়। বেশ অমায়িক এক মানুষ হিসাবেই তিনি প্রথম দিনেই আমার হৃদয়ে জায়গা করে নিয়েছিলেন। তারপরে দীর্ঘদিন যোগযোগ হয়নি। হটাৎ খোঁজ পেলাম তিনি গবেষনা শেষ করে বাংলাদেশে ফিরে যেয়ে ইন্ডিপেন্ডেন্ট ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশ বা আই.ইউ.বি (IUB) তে শিক্ষক হিসাবে যোগদান করেছেন। আবার পাশাপাশি বাংলাদেশেই বেশ কিছু গবেষনার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। উচ্চশিক্ষার পরে বাংলাদেশে ফিরে যাবার সাহস করেছেন বলে সত্যিই খুব শ্রদ্ধা হল। শুধু শিক্ষাকতায় নয় সাথে সাথে গবেষনা করছেন যেনে সত্যিই অভিভূত হলাম। আমারও যেহেতু বাংলাদেশে প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষাকতা ও গবেষনা করার অভিজ্ঞতা আছে, তাই কিছুটা হলেও উপলব্ধি করতে পারলাম কেমন প্রতিকূলতার বিরূদ্ধে তাকে কাজ করতে হচ্ছে। অবশেষে ১৮ নভেম্বর ২০২২ এ রাতে তার সাথে আমি সাক্ষাতকারের জন্য সময় পেলাম।

About ড. মশিউর রহমান

ড. মশিউর রহমান বিজ্ঞানী.অর্গ এর cofounder যার যাত্রা শুরু হয়েছিল ২০০৬ সনে। পেশাগত জীবনে কাজ করেছেন প্রযুক্তিবিদ, বিজ্ঞানী ও শিক্ষক হিসাবে আমেরিকা, জাপান, বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুরে। বর্তমানে তিনি কাজ করছেন ডিজিটাল হেল্থকেয়ারে যেখানে তার টিম তথ্যকে ব্যবহার করছেন বিভিন্ন স্বাস্থ্যসেবার জন্য। বিস্তারিত এর জন্য দেখুন: DrMashiur.com

Check Also

বিজ্ঞানী.ডট.অর্গ এর মুখোমুখি মো.নাজীবুল ইসলাম 

বিজ্ঞানী.অর্গ এ আমরা দেশ বিদেশের ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বাংলাদেশী বিজ্ঞানীদের সাক্ষাতকার নিয়ে থাকি। আজকে আমাদের …

ফেসবুক কমেন্ট


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।